বয়স পঞ্চাশ পেরিয়েছে? দেদার সিগারেট টানছেন? মারণ রোগ চুপিসারে বাসা বাঁধছে শরীরে

গুড হেলথ ডেস্ক

ধূমপান (Smoking) ক্যানসারের কারণ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এই চরম সত্যটা জানার পরেও সুখটানে লাগাম দিতে চাই না আমরা। ধূমপানে মজে জেন এক্স-জেন ওয়াই। প্রবীণরাও পিছিয়ে নেই। সমীক্ষা বলছে, বয়স্কদের মধ্যে ধূমপানের প্রবণতা বেশি দেখা যাচ্ছে। অবসাদ, একাকীত্ব, শারীরিক ও মানসিক নানা কারণে বয়স্করাও চেন স্মোকিংয়ে আসক্ত হয়ে পড়ছেন। ফলে বয়সকালে ক্যানসারের মতো মারণ ব্যধি (Cancer) বাসা বাঁধছে শরীরে।

আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটির সমীক্ষা বলছে, পঞ্চাশ বছর ও তার বেশি বয়সীদের মধ্যে ধূমপানের আসক্তি বেশি। এমনিতেও বয়স পঞ্চাশ পার হলে নানা রকম শারীরিক ব্যধি বাসা বাঁধতে থাকে। এর মধ্যে অতিরিক্ত সিগারেটে আসক্তি সমস্যা আরও বাড়িয়ে দেয়।

Smoking Cancer

গবেষকরা বলছেন, গত ৫ বছর ধরে ১৫ হাজারের বেশি জনের ওপরে এই সমীক্ষা চালানো হয়েছে। তাঁদের বয়স ৫০ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে। দেখা গেছে, মহিলা ও পুরুষ মিলিয়ে যাঁরা সবচেয়ে বেশি ধূমপানে আসক্ত তাঁদের মধ্যে নানারকম ক্যানসারের (Cancer) প্রকোপ ধরা পড়েছে। ফুসফুস ক্যানসার থেকে ব্রেস্ট ক্যানসার, প্রস্টেট ক্যানসার, মুখ ও গলার ক্যানসার এর মধ্যে বেশি। গবেষকরা বলছেন, মহিলাদের মধ্যে যাঁদের বিআমআই ইনডেক্স বেশি এবং ওবেসিটি রয়েছে, টাইপ ২ ডায়াবেটিস বা হাইপারটেনশন রয়েছে এবং অত্যদিক ধূমপান করেন তাঁদের মধ্যেই ক্যানসারের (Cancer) প্রকোপ বেশি দেখা গেছে। আবার পুরুষদের মধ্যে যাঁদের ব্লাড প্রেশার, হাইপারটেনশন, উচ্চ কোলেস্টেরল, সুগার, প্রস্টেটের সমস্যা রয়েছে এবং ধূমপানে আসক্তি বেশি, তাঁদের মধ্যে ক্যানসারের প্রকোপ বেশি। এর অর্থ হল শরীরের নানা রকম কোমর্বিডিটি থাকলে ধূমপান সেখানে ক্যানসারের অন্যতম রিস্ক ফ্যাক্টর হিসেবে কাজ করছে।

Cancer

মার্কিন মুলুকে জনসংখ্যার ২৩ শতাংশ মহিলাই সিগারেটে আসক্ত। তবে এই সমীক্ষাটা ছিল এক বছর আগের। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই সংখ্যা এখন আরও বেড়েছে। ইউনিভার্সিটি অব শেফিল্ডের গবেষকরা বলছেন, ২০০৯ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৪৭ শতাংশ মহিলা ধূমপানের কারণে নানা রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। শুধু ক্যানসার নয় (Cancer) , হরমোনের সমস্যা থেকে স্ত্রীরোগ সবই ছিল। ২০০৫-২০১০ পর্যন্ত মহিলাদের মধ্যে ধূমপানের আসক্তি বেড়েছে ১.৪%-২.৯%। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট বলছে, শুধুমাত্র সুখটানে আসক্তির কারণেই ফি বছর বিশ্বে এক লক্ষেরও বেশি মহিলার মৃত্যু হয়। ২০২৫ সালে গিয়ে এই আসক্তি আরও ২০ শতাংশ বাড়বে বলেই মত গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোবাকো সার্ভের (Global Adult Tobacco Survey)বিশেষজ্ঞদের।

ধূমপানে বাড়ে পেরিফেরাল ভাস্কুলার ডিজিজের আশঙ্কা। অর্থাৎ পা-সহ শরীরের বিভিন্ন অংশের রক্তবাহী ধমনিতে কোলেস্টেরলের প্রলেপ জমে রক্ত চলাচল কমে যায়। সব থেকে বেশি সমস্যা হয় পায়ে। ধূমপায়ীদের এই অসুখের আশঙ্কা অন্যদের থেকে ১৬ গুণ বেশি। মধ্য বয়সে পেরিফেরাল ভাস্কুলার ডিজিজ জনিত পায়ের ব্যথার রোগীদের ৯৫% ধূমপায়ী।