Prostate Cancer: প্রস্টেট ক্যানসারেও সুস্থ জীবনযাপন করা যায়, মাথায় রাখুন এই ১২ পয়েন্ট

গুডহেল্থ ডেস্ক: ক্যানসার মানেই ভয়। দুরারোগ্য ব্যাধি হিসেবে প্রথম স্থানেই এই রোগ। তবে ক্যানসার গোত্রীয় হলেও প্রস্টেট ক্যানসারকে (Prostate Cancer) তেমন ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। এত দিনের হিসেব বলছে, এই ক্যানসারের চতুর্থ পর্যায়ে পৌঁছেও রোগী দিব্যি স্বাভাবিক জীবন ধারণ করতে পারেন।

প্রস্টেট ক্যানসার (Prostate Cancer): এই ১২ পয়েন্ট মাথায় রাখুন।

  • মূলত ৬০ বছরের বেশি বয়সী পুরুষদেরই এই রোগ হয়।

  • কম বয়সে প্রস্টেট ক্যানসারের রেকর্ড তেমন নেই।

  • সঠিক সময়ে চিকিৎসা করতে পারলে প্রস্টেট ক্যানসার একেবারেই সেরে যায় আর দীর্ঘজীবন সুস্থ ও সুন্দরভাবে বাঁচা যায়।

  • এই ক্যানসারের সবচেয়ে বড় সুবিধার দিকটা হল, মাত্র ১টা রক্ত পরীক্ষা করেই এ রোগ শনাক্ত করা যায়।

  • পরে ট্রু কাট বায়োপসি করে ক্যানসারের গতিপ্রকৃতি নিশ্চিত করে বলা যেতে পারে।

  • শুরুতেই ধরা পড়লে ব়্যাডিক্যাল প্রস্টেক্টমি করে প্রস্টেট বাদ দিয়ে দিলেই ক্যানসার থেকে নিষ্কৃতি।

  • রেডিয়েশন থেরাপির ফলও ভাল।

  • অ্যাডভান্সড স্টেজে পৌঁছে গেলে সবচেয়ে কার্যকর হয় হরমোন থেরাপি।

  • কেমোথেরাপিও দেওয়া যেতে পারে।

  • প্রস্টেট ক্যানসারের গতিপ্রকৃতি ভীষন মন্থর।

  • দেরি করে ধরা পড়লেও চিকিৎসা করে প্রস্টেটের ক্যানসার সারিয়ে ফেলা যায়।

  • ৭০-৮০ বছর বয়সেও এই ক্যানসার নিয়ে দিব্যি স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারেন।

আসলে প্রস্টেট ক্যানসার (Prostate Cancer) এমন একটি ক্যানসার, যেখানে মৃত্যুই একমাত্র বিকল্প নয়। বরং চিকিৎসায় আরোগ্য লাভের হাজার একটা বিকল্প রয়েছে।  তাই প্রস্টেট ক্যানসারকে ভয় পাবেন না। বরং চিকিৎসা করিয়ে বাকি জীবনটা দিব্যি কাটিয়ে দিন। ভাল থাকুন।

সন্তানধারণে আইভিএফ-এর সাহায্য নেবেন ভাবছেন? মাথায় রাখুন এই ১০ বিষয়