Child Obesity: মোটা হয়ে যাচ্ছে বাচ্চারা, ওবেসিটি কিন্তু হার্টের রোগের ঝুঁকি বাড়ায়

গুড হেলথ ডেস্ক

করোনাকালে ওবেসিটি (Child Obesity) মারাত্মক বেড়ে গেছে। ন্যাশনাল ফ্যামিলি হেলথ সার্ভে (এনএফএইচএস)-র রিপোর্ট বলছে, ২০১৫-১৬ সালের তুলনায় ২০২১ সালে স্থূলত্বের হার অনেকটাই বেড়েছে। গ্রামীণ এলাকাতেও বাচ্চাদের মধ্য়ে ওবেসিটির হার ৩০ শতাংশ বেশি। অস্বাস্থ্যকর খাওয়া, কম ঘুম, যখন তখন জাঙ্ক ফুড খাওয়ার প্রবৃত্তি বাচ্চাদের স্থূলত্ব বাড়াচ্ছে। আর ওবেসিটি ছোট থেকেই নানা রোগের কারণ হয়ে উঠছে। হার্টের অসুখের অন্যতম রিস্ক ফ্যাক্টর কিন্তু ওবেসিটি।

Childhood obesity

মোটা হয়ে যাচ্ছে বাচ্চারা, কী কারণ?

মোটা হয়ে (Child Obesity) যাওয়ার পিছনে বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে। ফাস্ট ফুড, ঠাণ্ডা পানীয় বা অতিরিক্ত ক্যালোরিযুক্ত খাবার খাওয়া থেকে শুরু করে, শারীরিক পরিশ্রম না করা কিংবা কোনও ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া। বাচ্চাদের খিদে পেলেই বাবা-মায়েরা চিপস কিনে দিচ্ছেন বা অনলাইনে চটজলদি পিৎজা-বার্গার-চকোলেট পেস্ট্রি অর্ডার দিয়ে দিচ্ছেন। এরপরে অ্যাসিডিটি হলেই বড়দের মতো অ্য়ান্টিসিড খাইয়ে দিচ্ছেন। এখনকার অনেক বাচ্চাই অ্য়ান্টাসিড জাতীয় ওষুধ বা হোমিপ্যাথি হজমের ওষুধে অভ্যস্ত হয়ে উঠেছে। এর কারণই হল অত্যধিক ভাজাভুজি আর ফাস্ট ফুড খাওয়ার প্রবণতা।

Acute Kidney Injury: কফি খেলে কিডনির রোগের ঝুঁকি কমে? কত কাপে উপকার বললেন বিজ্ঞানীরা

Childhood obesity

হাইপারটেনশন, হার্টের রোগের শুরুটা হয় ছোট থেকেই

ছোটবেলায় দেখা যায় হঠাৎ করে মেদ জমতে শুরু করেছে (Child Obesity)। বুক, পেট, কোমর চওড়া হচ্ছে। শরীরে ইনসুলিনের কার্যক্ষমতা কমছে। হাত-পায়ের তুলনায় পেট ফুলে যাচ্ছে। তখন সতর্ক হতে হবে। রক্তের পরীক্ষা করাতে হবে। ট্রাঙ্কাল ওবেসিটিতে বেশি ভোগে বাচ্চারা। ভুঁড়ি বাড়তে থাকে। পেট ও তলপেটে মেদ বাড়ে। কোমর চওড়া এবং পেটে মেদ জমে ফুলতে শুরু করে। এই দশাকেই বল ট্রাঙ্কাল বা অ্যাবডমিনাল ওবেসিটি। সেন্ট্রাল ওবেসিটিও বলেন অনেকে। তখন মেদ না ঝরালে কার্ডিওভাস্কুলার রোগের ঝুঁকি বেড়ে যায়। মেদ তো কেবল বাইরে জমে না, পাকস্থলীর ভেতরেও জমে। তখন অগ্ন্যাশয়ে চাপ পড়তে থাকে। ফলে রক্তে শর্করার পরিমাণও বেড়ে যায়। ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে।

 obesity

বাচ্চাদের ঘরের তৈরি খাবার খাওয়ান

ছোটবেলা থেকেই শিশুকে নির্দিষ্ট নিয়মে অভ্যস্ত করে তুলতে হবে। মা-বাবাকেও মানতে হবে কিছু নিয়ম। রান্না করতে ইচ্ছে করছে না বলে শিশুকে যথেচ্ছ সাপ্লিমেন্ট বা হেলথ ড্রিঙ্ক খাইয়ে রাখা, কিংবা যখন তখন বায়না করলেই চকোলেট দিয়ে বায়না মেটানো এসব অভ্যাস ছাড়তে হবে।

Healthy diet for children

চোখের খিদেতে বাচ্চারা অনেক সময় এটা খাব সেটা খাব বলে বায়না করে। পেট ভর্তি থাকলে বা কিছুক্ষণ আগে খাওয়ালে আর খেতে দেবেন না। দিনে ৬টা মিলে অভ্যস্ত করান। অল্প অল্প করে বারে বারে খাওয়ান।

বেশি করে শাকসব্জি-ফল খাওয়ান। খুচরো খিদে মেটাতে হাল্কা চিকেন স্ট্যু বা সব্জি দিয়ে স্যুপ বানিয়ে দিন। ওটস-দই দিয়ে পরিজ করে দিতে পারেন। বাইরের খাবার বা প্যাকেটজাত খাবার একদম চলবে না।

ঝালমশলার খাবারের বদলে রোজকার ডায়েটে রাখতে হবে ডাল, মাছ, মুরগির মাংস, সবুজ শাকসব্জি, ফল আর সয়া প্রোটিন।

ছোট থেকে শরীরচর্চার অভ্যাস তৈরি হলে মেদ জমার প্রবণতা কমে।