কোন কোন অভ্যাসে কাবু হবে ডায়াবেটিস, লাইফস্টাইল বদলালেই কাজ হবে ম্যাজিকের মতো

গুড হেলথ ডেস্ক

ডায়াবেটিস (Diabetes) মানে জীবন থেকে পছন্দের সব বাদ চলে গেল এমনটা একেবারেই নয়। ডায়াবেটিস নিয়ে ভুল ধারণা আছে। অনেকেই ভাবেন মিষ্টি খেলে ডায়াবেটিস হয়, এমনটা একেবারেই নয়। কিন্তু রক্তে শর্করা বাড়তে শুরু করলে তখন মিষ্টি খাওয়ায় রাশ টানতে হবে বইকি। 

ডায়াবেটিস (Diabetes) থাকলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখাটা খুবই জরুরি। না হলে অচিরেই হৃদরোগ, স্নায়ুর অসুখ, পায়ের সমস্যা দেখা দিতে পারে। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার সবচেয়ে ভাল উপায় এর উপযোগী ডায়েট মেনে চলা। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় খাওয়াদাওয়ার পরে রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়। একে ডাক্তারি ভাষায় ‘আফটার মিল হাইপারগ্লাইসেমিয়া’ বলা হয়। শুধু খাওয়াদাওয়া নয়, রোজের কিছু বদঅভ্য়াসও অজান্তেই রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডায়াবেটিস (Diabetes) নিয়ন্ত্রণে রাখার সবচেয়ে ভাল উপায় হল লাইফস্টাইল ম্যানেজমেন্ট। প্রতিদিন কিছু অভ্যাস মানলেই রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

 

কোন কোন অভ্যাসে কাবু হবে ডায়াবেটিস

 

১) সারাদিনের খাওয়ার রুটিন করতে হবে

যা ইচ্ছা হল খেয়ে ফেললে চলবে না। সকাল থেকে সারা দিন কী খাবার খাচ্ছেন সেটা খেয়াল রাখা জরুরি। যেমন দুপুরে যদি পছন্দের খাবার, বেশি তেলমশলা দেওয়া খাবার খেয়ে ফেলেন তাহলে রাতে একদমই হাল্কা খেতে হবে। সকালে যদি মিষ্টি বেশি খেয়ে ফেলেন তাহলে সেই দিন কার্বোহাইড্রেট কম খান (Diabetes)। ভাত-রুটি পরিমাণে কম খান বা বাদ দিন। বেশি করে ফল খান। ফলে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, ভিটামিন ও মিনারেলস থাকে। কার্বোহাইড্রেট বাদ দিলেও ব্যালান্স ঠিক থাকবে।

Diabetes


২) ছোট ছোট মিল বারে বারে খেতে হবে

বারে বারে অল্প অল্প করে খাবার খান। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তিন বেলা ভারী খাবার খাওয়ার চেয়ে যদি বারে বারে অল্প করে খাবার খাওয়া যায়, তা হলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৩) চিনি বা চিনি দেওয়া খাবার কম খেতেই হবে

চিনি দেওয়া কড়া পাকের মিষ্টি একদম চলবে না। এখন বেশিরভাগ দোকানেই সুগার ফ্রি দেওয়া মিষ্টি বানায়। খেতেও দারুণ। তেমন মিষ্টি খেতে পারেন (Diabetes)। একান্তই মিষ্টি খেতে ইচ্ছে হলে চিয়া পুডিং, নারকেলের মিষ্টি খেতে পারেন। হাই ব্লাড সুগার থাকলে কম পরিমাণ ফ্যাট থাকা দুগ্ধজাত খাবার বা লো ফ্যাট দুধ যেমন দই, ছানা, বাটার মিল্ক ইত্যাদি খাওয়া যেতে পারে।

Daily Habits to Manage Your Diabetes

৪) বেশি করে খান শাকসব্জি ও ফল

সবজি যেমন পালং, মেথি, নটে ইত্যাদি শাক ও টাটকা মরশুমি ফল যেমন আপেল, পেয়ারা, নাশপাতি, জামরুল, মুসাম্বি, বাতাবিলেবু, কমলালেবু, পাকা পেঁপে, তরমুজ ইত্যাদি রাখতেই হবে ডায়াবেটিসের ডায়েটে। সবজি ও ফলমূলে বিভিন্ন রকম ভিটামিন ও মিনারেলের সঙ্গে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, যা শরীরের জন্য খুবই দরকারি। সবুজ শাকসবজি রক্তে গ্লুকোজ ও লিপিডের পরিমাণও কম রাখতে সাহায্য করে।

৫) শরীরচর্চা জরুরি

রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে নিয়ম করে ব্যায়াম, ধনুরাসন, ভুজঙ্গাসন, বালাসনের মতো কয়েকটি সহজ যোগাসন করা জরুরি। নিয়ম করে হাঁটলেও সুফল পাবেন।

Exercise For Diabetes

৬) প্রোটিন পেতে খান টাটকা ছোট মাছ

চারাপোনা, বাটা বা ১ কেজির চেয়ে কম ওজনের মাছ খাওয়া যেতে পারে। ডায়াবেটিস রোগীদেরও প্রোটিন খাওয়া প্রয়োজন। প্রোটিনের চাহিদা সহজেই পূরণ করতে পারে স্বাস্থ্যকর ছোট মাছ।

৭) তাড়াতাড়ি রাতের খাওয়া সারুন

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে রাত করে খাবার না খাওয়াই ভাল। এই অভ্যাস শুধু ডায়াবেটিস নয়, অন্যান্য রোগেরও কারণ হতে পারে। 

৮) ভাতঘুম দেবেন না

দিবানিদ্রা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য মোটেই ভাল নয়। দিনের বেলা ভাত খেয়ে না ঘুমোনোই ভাল। এতে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যাওয়া আশঙ্কা থাকে।