Eye Care: চোখ ভারী, জ্বালা, জল পড়ছে? একটানা স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকছেন না তো

গুড হেলথ ডেস্ক

চোখ হল সবচেয়ে স্পর্শকাতর অঙ্গ। চোখে বেশি চাপ পড়লেই মুশকিল (Eye Care)। তখন চোখ জ্বালা করবে, ঘন ঘন জল পড়বে। চোখ চুলকালেই জ্বালাভাব বাড়বে। একটানা কম্পিউটার স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে কাজ করলে, বেশিক্ষণ মোবাইল ঘাঁটলে, বা সারাদিন ল্যাপটপ-ট্যাবে চোখ রাখলে–ব্যথা তো হবেই। কম্পিউটার বা মোবাইল স্ক্রিন থেকে বেরনো রশ্মি চোখের কর্নিয়ায় মারাত্মক প্রভাব ফেলে। ফলে চোখ লাল হয়ে যায়, জ্বালা করতে থাকে।

দিনভর স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে, চোখের বারোটা বাজছে 

স্মার্ট ফোন, ট্যাব বা কম্পিউটার মনিটরের যত ভাল পিকচার কোয়ালিটি, তত কষ্ট কম (Eye Care)। অর্থাৎ স্ক্রিনের রেজোলিউশন কত সেটা জেনে নিতে হবে।  চোখের রেজোলিউশন ৭৪ মেগাপিক্সেলেরও বেশি। এবার পর্দার রেজোলিউশন যত এর কাছাকাছি হবে তত কষ্ট কম হবে।

 eye care

অনেকেই সারাক্ষণ একটানা স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকেন (Eye Care)। ফলে চোখে চাপ পড়ে বেশি। চোখ জ্বালা করতে থাকে, অনবরত জল পড়ে। অন্ধকারের মতো বেশিক্ষণ কম্পিউটার বা মোবাইলে চোখ রাখলেও চোখে ব্যথা হবে, চোখ ভারী লাগবে। অনেকেই ভাবেন স্ক্রিন থেকে তো আলো বের হয়, তাহলে আর আলো জ্বালানোর দরকার নেই। ভুলটা হয় এখানেই। কম্পিউটার বা মোবাইলের রশ্মি চোখে ঢুকে কর্নিয়ার ক্ষতি করে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সবসময় জোরালো আলোয় কাজ করা উচিত।

মাথার উপর ফ্লুরোসেন্ট আলো জ্বললে সমস্যা হয় সবচেয়ে বেশি। লাগাতে হবে সাধারণ আলো। কাজ যেখানে করছেন সেখানে পিছনে ও সাইডে আলো হলে বেশি ভাল হবে। বাঁ সাইডে হলে সবচেয়ে ভাল। ডান দিকে হলেও চলবে।

eye care

ব্রাইটনেস, কালার, কনট্রাস্ট, হরফের সাইজ কম-বেশি করে নিলে কষ্ট কমে যায়।

 

চোখ ভাল থাকবে, কী করবেন

২০ মিনিট পর পর স্ক্রিন থেকে চোখ সরিয়ে ২০ ফুট দূরের কোনও কিছুর দিকে ২০ সেকেন্ড তাকিয়ে থাকুন (Eye Care)। অনেক পুরনো এই টোটকায় কাজ হয় খুব বেশি।

চোখের মধ্যে জলের ঝাপটা দেবেন না। চোখ বন্ধ করে ঠান্ডা জল দিন। চোখের জলেরও অনেক উপকারি উপাদান আছে, তা সব বেরিয়ে গেলে চোখের ক্ষতি হয়।

ড্রাই আই হলে টিয়ার ড্রপ দিতে পারেন, অবশ্যই ডাক্তারকে জিজ্ঞেস করে।

 Eye Damage

চোখের কয়েকটি ব্যায়ামও কাজে দেয়

প্রতি ৩-৪ সেকেন্ড পরপর চোখের পাতা ফেলুন (Eye Care)। বিশেষ করে এক ভাবে কম্পিউটারের দিকে তাকিয়ে থাকলে মাঝেমাঝে চোখের এই ব্যায়ামটি করে নেওয়া ভাল। টানা ১ মিনিট ঘন ঘন চোখের পাতা ফেলাও খুব উপকারি।

দু’হাতের তালু একটির সঙ্গে অপরটি ঘষে নিন ১৫ মিনিট ধরে। ঘর্ষণের ফলে হাতের তালুতে তাপ তৈরি হবে। এবার চোখ বন্ধ করে হাতদু’টি চোখের উপরে হাল্কা করে রাখুন। দিনে তিন থেকে চার বার এইভাবে চোখে তাপ দিতে পারেন। চোখ ভাল থাকবে।

Eye Exercise

চোখ বড় করে ঘড়ির কাঁটার দিকে ও বিপরীতে চার থেকে পাঁচ বার করে চোখ ঘোরান। এরপর ৪ মিনিট মতো অপেক্ষা করুন। ২-৩ বার এই ব্যায়াম করলে চোখের ব্যথা অনেক কমে যাবে।

Gut Problems: বর্ষায় ঘন ঘন পেট খারাপে মুঠো মুঠো ওষুধ খাবেন না, ঘরোয়া টোটকা জেনে নিন