রঙচঙে লেন্স নয়, চোখের অলঙ্কার বাছুন সযত্নে

গুডহেলথ ডেস্ক: চোখ সাজাতে লোকে কত কিছুই না ব্যবহার করেন। কাজল, লাইনার, শ্যাডো তো রয়েছেই, সঙ্গে পার্টি বা কোনও বিশেষ অনুষ্ঠানে মেকওভারের জন্য কালার লেন্সের (Contact Lenses) ব্যবহারও এখন বেশ লক্ষণীয়। গুণগত মান যাচাই না করেই বাজারচলতি সস্তা বা যে কোনও মানের লেন্স পরে এখন অধিকাংশ তরুণ তরুণীরাই রাঙিয়ে তুলছেন চোখ। এসব ক্ষেত্রে সৌন্দর্যই মুখ্য। লেন্সের প্রয়োজনীয়তা এখানে শুধু সাজের জন্যই। দৃষ্টির জন্য নয়।

চোখ সাজান, কিন্তু সুরক্ষার বিষয়ে খেয়াল আছে তো!

Can You Put Non-Prescription Colored Contact Lenses Over Normal  Prescription Contact Lenses?

চোখ ভীষণই স্পর্শকাতর একটি অঙ্গ। চোখের মধ্যে সামান্য কিছু পড়লেও অস্বস্তি হয়, কড়কড় করে, লাল হয়ে যায়। কারণ চোখের স্বাচ্ছন্দ্যো ব্যাঘাত ঘটে। বাজারচলতি লেন্সেও কিন্তু এ সমস্যা হয়। চোখ যদি সুস্থ স্বাভাবিক হয়, তাহলে চক্ষু বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে কোনও বিশ্বস্ত ভালো ব্র্যান্ডের, ভালো মানের লেন্স আপনি পরতেই পারেন। তবে চোখে যদি কোনও রকম মায়োপিক বা সিলিন্ড্রিকাল পাওয়ার থাকে, তবে লেন্স অবশ্যই তার উপযুক্ত হওয়াই কাম্য। সে ক্ষেত্রে পাওয়ারের কথা না ভেবে চোখে যা হোক লেন্স পরে নেওয়া মানে আখেরে চোখেরই ক্ষতি করা।

Here's why you should never use decorative contact lenses—in graphic  pictures | Ars Technica

কেন?

বাজারচলতি কমদামি লেন্সগুলোর উপাদান খুব নিম্নমানের হতে পারে। যেগুলো হয়তোচোখের জন্য আরামপ্রদ না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। তা ছাড়া, লেন্সের কার্ভেচার চোখের সঙ্গে মানানসই হওয়া দরকার। লেন্সের কার্ভেচার চোখের উপযুক্ত না হলে চোখের অস্বস্তি বাড়তে পারে। চোখ কড়কড় করতে পারে। মণির চারপাশটা লাল হয়ে যেতে পারে।

Are Non-Prescription Contacts Safe to Wear?. - Drs. Campbell, Cunningham,  Taylor, and Haun

শুধু তাই নয়, লেন্সের সূক্ষ্ম ছিদ্র দিয়ে কর্নিয়ায় অক্সিজেন পৌঁছয়। কম দামী লেন্সের এই পারফোরেশন রেশিও অনেক কম থাকে। এ থেকেও চোখে নানা বিপত্তি বাঁধতে পারে। যেমন, হতে পারে-

কর্নিয়াল ইনফেকশন
কর্নিয়াল আলসার
চোখে এলার্জি
ড্রাইনেস অফ আই

চোখের কর্নিয়ার যে স্তরগুলো থাকে, কনট্যাক্ট লেন্সের কারণে চোখে জল শুকিয়ে গেলে সেগুলো নষ্ট হতে শুরু করে। তাই লেন্স ব্যবহারের বিষয়ে সচেতন হওয়া প্রয়োজন। লেন্স নিলে একটু দামি ও ভাল মানের লেন্স ব্যবহার করাই ভাল। কারণ, চোখের সঙ্গে আপস চলে না। চিকিৎসকের অনুমতি ছাড়া চোখের এমন সাজ ভবিষ্যতের সাজা হয়ে থেকে যেতে পারে আজীবন। 

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকাসুখপাঠ