চড়া রোদে সোলার রেটিনোপ্যাথির ঝুঁকি বাড়ে, এই গরমে চোখ ভাল রাখার উপায় বলছেন ডাক্তারবাবুরা

গুড হেলথ ডেস্ক

গত একমাস ধরে প্রচণ্ড দাবদাহ (Heatwave) চলছে। হাল্কা বৃষ্টি হলেও গরম কমছে না। তীব্র তাপপ্রবাহ মানেই হল সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মিরা চড়াও হচ্ছে আমাদের উপর। এইসব রশ্মির তরঙ্গদৈর্ঘ্য খুবই কম, যেমন–ইউভিএ, ইউভিবি, ইউভিসি। এই তিন রশ্মি চোখে দেখা যায় না ঠিকই, কিন্তু মানুষের শরীরের জন্য চরম ক্ষতিকর। ইউভিএ রশ্মি ত্বকের ক্যানসারের জন্য দায়ী, ইউভিবি চোখের রেটিনার ক্ষতি করে। এই রশ্মি নিরন্তর চোখে ঢুকলে চোখের জল বাষ্পীভূত হয়ে বেরিয়ে যায়, ফলে শুষ্ক চোখ বা ড্রাই আইয়ের সমস্যা হয়। যার থেকে সোলার রেটিনোপ্যাথির (Solar Retinopathy) ঝুঁকি বাড়ে।

Solar Retinopathy

তাপপ্রবাহে চোখের কী কী ক্ষতি হয়?

চক্ষু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চড়া রোদে সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মি সরাসরি পড়ে চোখে ( (Heatwave Eye Care))। বেশিক্ষণ রোদের মধ্য়ে থাকলে চোখের ক্ষতি হতেই পারে। বিশেষ করে এই তাপপ্রবাহে যাঁরা প্রতিদিন রাস্তায় বের হচ্ছেন তাঁদের বিপদ বেশি। এমনিতেও এখন অনেকেরই চোখে ব্যথা, চুলকানি, চোখ দিয়ে জল পড়ার মতো সমস্যা দেখা যাচ্ছে। রোদে বেশি সময় বাইরে থাকলে চোখে জ্বালা করছে।

সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির বিকিরণে সোলার রেটিনোপ্যাথি হলে চোখের জল শুকিয়ে যেতে থাকবে, ফলে দৃষ্টি ঝাপসা হবে। তাছাড়া টেরিজিয়াম নামে এক ধরনের রোগ হয় যাতে কোষের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি হয়ে মাংসপিণ্ড চোখের মণি বা কর্ণিয়াতে ঢুকে পড়ে। এর ফলে চোখের মণি ক্ষতিগ্রস্থ হয়, দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে অন্ধত্বও আসতে পারে।

অতিবেগুনি রশ্মির বিকিরণে চোখে ছানি বা ক্যাটারাক্টের ঝুঁকিও বাড়ে।

Solar Retinopathy

দাবদাহে চোখ ভাল রাখার উপায়

রোদচশমা বা ইউভি প্রোটেকশন দেওয়া সানগ্লাস ব্যবহার করুন।

বেশি করে জল খেতে হবে।

স্বাস্থ্যকর খাবার, বেশি করে শাকসব্জি খেতে হবে।

চোখ বেশি চুলকাবেন না, ঠান্ডা জলের ঝাপটা দিন।

লুব্রিক্যান্ট আই ড্রপ ব্যবহার করতে পারেন।

মুখে সানস্ক্রিন মাখার সময় খেয়াল রাখবেন চোখে যেন না ঢোকে।

ভিটামিন এ সমৃদ্ধ খাবার বেশি খেতে হবে। ফলের মধ্যে পেঁপে, গাজর, শসা, আপেল, তরমুজ খান। লাউ জাতীয় সব্জি বেশি খান। আপেলের ম্যালিক অ্যাসিড চোখে জলের ভারসাম্য বজায় রাখে। ড্রাই আই হতে দেয় না।

ঘণ্টার পর ঘণ্টা যাঁরা রোদে থাকেন অথবা চড়া আলোর মধ্য়ে থাকেন তাঁদের ফটোকেরাইটিস হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে (Heatwave Eye Care)। কিছুদিন আগেই আবহাওয়া দফতর সতর্ক করে বলেছিল, বেলা ১১টা থেকে বিকেল ৪টে পর্যন্ত রাস্তায় থাকবেন না। এই সময় রোদের তেজ আরও চড়া হয়. তার ওপরে তাপপ্রবাহ চলে। সব মিলিয়ে শরীরের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। প্রচণ্ড রোদে চোখেরও যে ক্ষতি হয় তা অনেকেরই অজানা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যেভাবে গরম বাড়ছে এবং রোদের তেজও বাড়ছে, তাতে এখন থেকেই সাবধান হওয়া দরকার।

বেশিক্ষঁ চড়া রোদে থাকবেন না। প্রেশার, সুগার টেস্ট করিয়ে রাখুন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।