দিনভর কাপের পর কাপ চা খান? কী কী ক্ষতি হচ্ছে জানেন তো

গুড হেলথ ডেস্ক

বাঙালি মানেই চা-প্রেমী। মাটির ভাঁড়ে ধোঁয়া ওঠা চায়ে একটু চুমুক, আহ! নিমেষেই শরীর চনমনে হয়ে ওঠে। সেই সঙ্গে মেজাজও হয় ফুরফুরে। অফিসে, পাড়ার মোড়ে আড্ডা দিতে গিয়ে দিনে প্রায় পাঁচ থেকে ছয় বার (Tea) হয়েই যায়। দুধ দিয়ে মালাই চা হোক বা হালফিলের গ্রিন টি–কোনও কিছুতেই আপত্তি নেই। কিন্তু জানেন কি, এই স্বস্তির চুমুকই হয়ে উঠতে পারে আপনার অসুখের কারণ। কী কী সমস্যা হতে পারে অতিরিক্ত চা খেলে।

অ্য়াসিডিটি

অতিরিক্ত চা খেলে বুকজ্বালা হতে পারে। এটি অন্ত্রে অ্যাসিডের উৎপাদন বাড়ায়। এ কারণে বুকে জ্বালাপোড়া হয়। অতিরিক্ত চা (Tea) খাওয়ার কারণেও অ্যাসিড রিফ্লাক্সের সমস্যা বাড়তে পারে।

Side Effects of Tea

কোষ্ঠকাঠিন্য

চায়ে থিওফিলাইন নামে এক ধরনের রাসায়নিক থাকে। এই রাসায়নিক বেশি মাত্রায় শরীরে ঢুকলে কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা তৈরি করে। অনেকেই মনে করেন, সকালে গরম গরম চা খেলে পেট পরিষ্কার হয়। যেখানে অতিরিক্ত চা খেলে কোষ্ঠকাঠিন্যও হতে পারে। আর খালি পেটে ঘন ঘন চা খেলে, পেটের রোগ বাড়বে বই কমবে না।

মাথা ঘোরা
চায়ের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন থাকে, যার ফলে মাথা ঘোরাতে পারে। যদি বেশি পরিমাণে অর্থাৎ ৪০০-৫০০ মিলিগ্রামেরও বেশি ক্যাফেইন শরীরে ঢোকে তাহলে এমন অসুবিধা হতে পারে।

ছোট বাচ্চাদের মলমূত্রে হাজারের বেশি ভাইরাস! দুই শতাধিক অচেনা প্রজাতি পাওয়া গেল পেটেই

Caffeine

ইনসমনিয়া

মুড পরিবর্তনের জন্য আদর্শ ড্রাগ ক্যাফেইন। এর যেমন কিছু ভাল দিক রয়েছে, তেমনই রয়েছে কিছু খারাপ দিকও। ঘন ঘন চা খেলে ঘুমের সমস্যা হয়, উত্তেজনা বাড়ে, অস্থিরতা বাড়িয়ে দেয়, হৃদস্পন্দন বাড়িয়ে দেয়।

দুশ্চিন্তা

মুড ভাল করার জন্য, স্ট্রেস কাটাতেই আমরা চা খাই। কিন্তু অতিরিক্ত চা মুড সুয়িং-এর কারণ হয়ে উঠতে পারে। কারণ বেশিমাত্রায় ক্যাফেইন শরীরে গেলে চিন্তা কমার বদলে দুশ্চিন্তা আরও বাড়তে পারে।

গর্ভাবস্থায় জটিলতা

গর্ভাবস্থায় বেশি পরিমাণে চা খাওয়া বিপজ্জনক। ক্যাফেইন গর্ভপাতের কারণ হতে পারে। অতিরিক্ত ক্যাফেইন শরীরে গেলে কম ওজনের বাচ্চা জন্মানোর ঝুঁকি থাকতে পারে। পরামর্শ দেওয়া হয় যে গর্ভবতী হওয়ার সময় ২০০ মিলিগ্রামের বেশি ক্যাফেইন খাওয়া উচিত নয়।

ক্যানসার

গবেষকরা জানাচ্ছেন, যাঁরা অতিরিক্ত চা খেয়ে থাকেন, তাঁদের প্রস্টেট ক্যানসারের সম্ভাবনা বেশি থাকে।