ইনসুলিনের সঙ্গে আড়ি? ডায়াবুলিমিয়ায় আক্রান্ত হতে পারেন ডায়াবেটিসের রোগীরা

গুড হেলথ ডেস্ক

ডায়াবেটিসের রোগীরা যদি ইনসুলিন নেওয়া বন্ধ করে দেন তাহলে কী হবে?

বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা বলছেন, ইনসুলিনের সঙ্গে আড়ি পাতলে, শরীরে নানা জটিল অসুখ বাসা বাঁধবে। তার মধ্য়েই একটা হল ডায়াবুলিমিয়া (Diabulimia)। ডায়াবেটিসের রোগীরা মনে করেন, ইনসুলিন নিলে ওজন বেড়ে যায়। ফলে ইনসুলিন কিছুদিন নিয়ে বন্ধ করে দেন। অন্যান্য নিয়মও মানেন না। খাওয়াদাওয়াতেও রাশ থাকে না। তখনই এই অসুখ হানা দেয়।

diabulimia

ডায়াবুলিমিয়া কী?

একধরনের ইটিং ডিসঅর্ডার (Eating Disorder)। ডাক্তারবাবুরা বলছেন, টাইপ-১ ডায়াবেটিসে এই রোগ হতে পারে। ডায়াবেটিসের রোগীরা জানেন যে ইনসুলিন নেওা বন্ধ করলেই ওজন কমতে পারে। তাই ক্ষতি হবে জেনেও তাঁরা সেই কাজটা করেন। ফলে নানাবিধ সমস্যা শুরু হয়ে যায়। ডায়াবুলিমিয়া যতটা শারীরিক সমস্যা, তার থেকেও বেশি মানসিক ব্যাধি।

কেন হয় এই রোগ?

রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতেই ইনসুলিন নিতে হয়। ইনসুলিন নিলে ওজন ঠিক থাকে, রক্তে শর্করার মাত্রাও নিয়ন্ত্রণে থাকে। কিন্তু ইনসুলিন নেওয়া বন্ধ করলেই রক্তে শর্করার পরিমাণ হু হু করে বাড়তে থাকে। হাইপারগ্লাইসেমিয়ায় আক্রান্ত হন রোগী। রোগী বার বার টয়লেটে যেতে শুরু করেন। খাবার থেকে যে পরিমাণ ক্যালোরি শরীরে ঢোকে তার সবটাই প্রস্রাব দিয়ে বেরিয়ে যায়। ফলে খাবার থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি ও শক্তি পান না রোগী। এর ফলে শরীরের ফ্যাট ভাঙতে শুরু করে। ওজন বেশিমাত্রায় কমতে থাকে। একটা সময় অপুষ্টি ও পেটের নানা সমস্যা শুরু হয়ে যায় রোগীর।

 Diabulimia

ডাক্তাররা বলছেন, ইনসুলিনে শরীরের কোনও ক্ষতি হয় না। প্রয়োজন সত্ত্বেও না নিলে রক্তচাপ, কোলেস্টেরল বাড়তে পারে। শুধু তা-ই নয়, হার্ট, কিডনি থেকে শরীরের সব প্রত্যঙ্গই খারাপ হতে শুরু করে৷

ইনসুলিন নিলেও খাবারে নিয়ন্ত্রণ রাখা দরকার৷ কারণ ইনসুলিনে রক্তে শর্করার মাত্রা কমে ঠিকই কিন্তু খাবারে রাশ না টানলে সেই মাত্রা আবারও বেড়ে যেতে পারে। ইনসুলিন নিলে ওজন তো আর কমে না, ডায়াবেটিস থাকলে এমনিতেই উচ্চ রক্তচাপ, কোলেস্টেরল ও হার্টের রোগের আশঙ্কা বাড়ে। ওজন বাড়লে সেই ঝুঁকি আরও বেড়ে যায়৷

ইনসুলিন নিলেও শরীরচর্চা বন্ধ করা উচিত নয়। অনেক সময়ে পর্যাপ্ত ইনসুলিন নেওয়া সত্ত্বেও রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক ভাবে কমে না। অর্থাৎ, ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স হয়৷ ব্যায়াম করলে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ইনসুলিনের কার্যকারিতা অনেক বেড়ে যায়।