Quit Smoking: সিগারেট ছাড়তে চেয়েও পারছেন না? চিন্তা নেই এই নিয়মগুলো মানুন

গুড হেলথ ডেস্ক

প্রতিবছর বিশ্বে প্রায় ৮০ লক্ষেরও বেশি মানুষের ধূমপানের (Quit Smoking) কারণে মৃত্যু হয়, যাদের মধ্যে এ দেশেই মৃত্যু দেড় লক্ষের কাছাকাছি। এখন পুরুষ নারী নির্বিশেষে ধূমপান করেন। ফলে ধূমপায়ীর সংখ্যা আগের চেয়ে বেড়েছে বই কমেনি। স্বাস্থ্যের কথা ভেবে অনেকে এমনও রয়েছেন, যারা ধূমপান ছাড়ার (Quit Smoking) সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, কিন্তু শত চেষ্টার পরেও আসক্তি কাটিয়ে উঠতে পারছে না। সত্যি বলতে একবার ধূমপানে অভ্যস্ত হয়ে গেলে ছেড়ে বেরনো কঠিন। তবে অসাধ্য নয়। একটু মনের জোর ও সহজ কিছু নিয়ম মেনে চললেই সহজে ধূমপানের অভ্যাস কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।

Quit Smoking

চলুন সেই নিয়ম গুলি সম্পর্কে একে একে জেনে নেওয়া যাক (Quit Smoking) …

১. পরিকল্পনা তৈরি করুন – ধূমপান ছাড়ার (Quit Smoking) জন্য একটি নির্দিষ্ট পরিকল্পনা ভীষণ জরুরি। হঠাৎ করে একবারে ছাড়ার চেষ্টা করলে সাধারণত সফলতা আসে না। ধীরে ধীরে দুই থেকে চার সপ্তাহ সময় নিয়ে ধূমপানের অভ্যাস একটু একটু কম করুন। দিনে এক প্যাকেট লাগলে তা থেকে একটিতে নামিয়ে আনার চেষ্টা করুন। ধূমপানে শরীর নিকোটিনে অভ্যস্ত হয়ে যায়। তাই একটু সময় লাগে এই অভ্যাস থেকে মুক্তি পেতে। দেখা যায়, শতকরা ৯০ ভাগ লোক ধূমপান ছাড়ার জন্য (Quit Smoking) হঠাৎ করেই ধূমপান বন্ধ করে দেন। এভাবে ৫ থেকে ৭ শতাংশ লোক সফল হন। বাকিরা হতাশ হয়ে আবারও সিগারেট টানতে শুরু করেন। তাই ধূমপান ছাড়ার জন্য সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা খুব দরকার।

Excessive Sweating: অতিরিক্ত ঘামেন কি? সমস্যা সামান্য নয়

quit smoking

২. ধূমপায়ীদের সঙ্গ এড়িয়ে চলুন- আপনার সামনে দাঁড়িয়েই একটার পর একটা সিগারেটে সুখটান (Quit Smoking) দিচ্ছেন যাঁরা তাঁদের দেখলেই আপনারও মন উশখুশ করতে বাধ্য। তাই যদি ধূমপান ছাড়বেন ভেবেই থাকেন, তাহলে চ্যালেঞ্জ পুরো না হওয়া অবধি ধূমপায়ীদের সঙ্গ একটু এড়িয়ে চলুন। ধূমপানের অভ্যাস কাটিয়ে ওঠার ক্ষেত্রে আমাদের আশেপাশের মানুষের ভূমিকা অপরিসীম। ধূমপায়ী বন্ধুদের সঙ্গ যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলার চেষ্টা করলে সুফল মেলে। এতে বন্ধুকে দেখে ধূমপানের ইচ্ছে বাড়ে না। ফলে ছেড়ে দেওয়া সহজ হয়।

৩. নিকোটিনের বিকল্প বাছুন- আচমকা ধূমপান ছেড়ে (Quit Smoking) দিলে আবার মুশকিল। অনেককেই বলতে শোনা যায় সিগারেট ছেড়ে শরীরে অস্বস্তি হচ্ছে। ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার সময় আমাদের মস্তিস্ক নিকোটিন হীনতায় ভোগে। এতে শরীরে কিছু বিরূপ প্রতিক্রিয়াও দেখা দিতে পারে। নিকোটিনের অভাব কাটাতে ধূমপান ছাড়ার পরপরই তামাকের নিকোটিনের পরিবর্তে অন্য কোনও বিকল্প বাছুন। সাময়িকভাবে নিকোটিনের অন্যান্য উৎস যেমন নিকোটিন গাম, ইনহেলার, স্প্রে বা লজেন্সের ব্যবহার করতে পারেন। এগুলোতে আসক্ত হওয়ার সম্ভাবনা নেই, বরং এগুলো নিকোটিন নির্ভরতা আরও কমাতে সাহায্য করে।

Quit Smoking

৪. নোনতা খাবার খান- ধূমপান ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলে সেই সময়ে হাতের কাছে নোনতা খাবার রাখুন। ধূমপানের জন্য মন ছটফট করলেই নোনতা খাবার খান। দেখবেন এতে ধূমপানের তেষ্টা অনেকটা মিটে যাবে।

৫. আপনি পারবেনই, আত্মবিশ্বাসী থাকুন – আগে হয়তো আপনি ধূমপান ছাড়ার (Quit Smoking) পরিকল্পনা করে ব্যর্থ হয়েছেন। তবে সেই ব্যার্থতার প্রভাব একেবারে পড়তে দেবেন না এইবারের প্রচেষ্টায়। নিয়মিত শরীরচর্চা করুন। নিয়মিত শরীরচর্চার অভ্যাস আমাদের আত্মবিশ্বাস ও মনের জোর বাড়াতে সাহায্য করে। ভাল থাকার অঙ্গীকারবদ্ধ হন। সফলতা আসবেই।