ঘরের কাজের চাপে মেয়েরা ব্রেকফাস্ট বাদ দিচ্ছেন, না খেয়েই অফিসে ছোটেন? বিপদ বাড়ছে

গুড হেলথ ডেস্ক

মেয়েরা সত্যিই দশভূজা। ঘরে-বাইরে দু’দিকেই সমান করে দায়িত্ব সামলাতে হয় (Women Health)। কেউ অফিস সামলে, কেউ ব্যবসা দেখে আবার বাড়ি ফিরে সংসারের হাজারো কাজে মন দিতে হয়। পরিবার-পরিজনের দেখাশোনার দায়িত্ব, সন্তান সামলানো সব করে আর নিজের শরীরের দিকে তাকানোর সময় হয় না বেশিরভাগ মেয়েরই। তাছাড়া  বেশি রাত পর্যন্ত জেগে অফিসের বা সংসারের বাড়তি কাজকর্ম সারা, টিভি দেখা বা বই পড়ার নেশা আছে অনেকেরই। ফলে সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হয়ে যায় নিয়মিত।  সকালবেলা তাড়াহুড়ো করে অফিস বেরোতে বা ছেলেমেয়ে-স্বামীকে তৈরি করতে এত ব্যস্ত থাকেন যে ব্রেকফাস্ট (Breakfast) খাওয়ার সময় বের করতে পারেন না।

breakfasts

বেশিরভাগ মেয়েদেরই এই সমস্যা আছে। সকালবেলা বড়োজোর এক কাপ চা বা কফি খাওয়ার সময় বের করে উঠতে পারি আমরা, এক-আধদিন সেটুকুও জোটে না৷ কিন্তু জানেন কি, এর ফল হতে পারে সুদূরপ্রসারী ও মারাত্মক। ব্রেকফাস্ট (Breakfast) না খাওয়ার ফলে শরীরের ধমনীগুলো শক্ত হতে শুরু করে। বাড়ে মেটাবলিক অ্যাবনর্মালিটি। ফলে হৃদরোগের আশঙ্কা বহুগুণে বেড়ে যায়।

Indian breakfast

ডাক্তারবাবুরাই বলেন, সকালবেলার জলখাবার না খেলে ওবেসিটি, ডায়াবেটিস, হাই কোলেস্টেরলের মতো নানা ধরনের সমস্যা হতে পারে। দের ওজন বেশি, তাঁরা সাধারণত ওজন কমানোর জন্য ব্রেকফাস্টটা স্কিপ করার চেষ্টা করেন, এর ফলে ক্ষতি হয় আরও বেশি। পুষ্টিবিদেরা বলছেন, রোজের কাজের চাপ যতই হোক না কেন, পেট ভরে ব্রেকফাস্ট খেয়ে তবে দিন শুরু করা উচিত৷ সম্ভব হলে ঘুম থেকে ওঠার আধ ঘণ্টা পর থেকেই অল্প অল্প করে কিছু না কিছু খাওয়ার অভ্যেস তৈরি করুন, তাতে শরীর ভাল থাকবে। নিয়ম মেনে পুষ্টিকর প্রাতরাশ খেলে ওজনও কমতে বাধ্য।