সারা বছর সর্দি, হাঁচি লেগেই আছে, সমস্যাটা কী? সারবে কী করে

গুড হেলথ ডেস্ক

বছরভর সর্দি-কাশি?

একটু বৃষ্টি হলে, বেশিক্ষণ এসি চালালেই হ্যাঁচ্চো, হ্য়াঁচ্চো শুরু (Cough Cold)?

অল্পেই ঠান্ডা লেগে খুকখুকে কাশি, ঘুষঘুষে জ্বর?

গাদা গাদা অ্য়ান্টিবায়োটিক খেয়ে, এনার্জি বুস্টার হজম করেও লাভ হয়নি? সেই ঘুমোতে গেলে নাক বন্ধ, সকালে উঠে হাঁচি, রাতের দিকে গলা শুকিয়ে কাশি লেগেই আছে?

 cold and cough

এই সমস্যাগুলো যদি আপনারও থাকে, তাহলে বুঝতে হবে বিষয়টা গুরুতর। সাধারণ সর্দি-কাশি নয় (Cough & Cold)। সাইনাসের সমস্যা, অ্যালার্জি ইত্যাদি সব মিলেমিশে পিণ্ড পাকিয়ে গেছে আপনার শরীরে। দেখবেন আকাশ মেঘলা, একটু বৃষ্টি হলেই ঠান্ডা লেগে যাবে, ধোঁয়া-ধুলোতে গেলে তো কথাই নেই। হাঁচির পর হাঁচি, চোখ লাল, চোখে চুলকানি। তারপর নাক বন্ধ, গলা বসে যাওয়া, জ্বরও আসতে পারে। শীতের সময় ভোগান্তি আরও বেশি। গোটা শীতকালটা জুড়েই সর্দি-কাশি ভোগাবে। সেই সঙ্গে চোখ লাল, চোখ ফুলে যাওয়া, চোখ দিয়ে জল পড়া তো আছেই।

সমস্যাটা কোথায়? কী হয়েছে আপনার?

আপনার সাইনাসের (Sinusitis) সমস্যা নেই তো? একবার চেকআপ করিয়ে নিন।

রাতে ঘুমোতে গেলে নাক বন্ধ, ঘুম থেকে উঠেই হাঁচি, সারাক্ষণ মাথাব্যথা, সিজন চেঞ্জের সময় সর্দি লেগেই থাকবে, বছরভর সর্দিকাশি, নাক দিয়ে জল পড়ার মতো সমস্যা যদি থাকে, তাহলে সাইনাসাইটিস হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

মানসিক রোগীদের যে কথাগুলো একেবারেই বলবেন না, এই জ্ঞান শুনলেই মাথা বিগড়ে যাবে

Cold and cough

মানুষের মাথার খুলিতে নাকের দু’পাশে, কপালে যে গহ্বরগুলি থাকে তাকে বলে সাইনাস। এর ভেতরে নাকের মতোই মিউকাস জমে থাকে। সাধারণত, শরীরে যখন প্রয়োজনের চেয়ে বেশি মিউকাস তৈরি হয়, তখনই বাড়তি মিউকাস নাক থেকে জলের আকারে বেরিয়ে যায়। কিন্তু যদি মিউকাস বেরোতে না পারে তখনই নানা সমস্যা শুরু হয়, একে বলে সাইনাসাইটিস (Sinusitis)।

সাইনাসাইটিস বাড়লে মাথা ধরার প্রবণতাও বাড়ে। রাতে ঘুমোতে গেলে অনেকেরই নাক বন্ধ হয়ে যায়। ফলে মুখ দিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাসের কাজ চালাতে হয়। গলা শুকিয়ে যায়, মুখের ভেতর শুকিয়ে যায়। সকালে উঠে হাঁচি হতে থাকে।

cold

 

অ্য়ালার্জির ধাত আছে কি?

আপনার কি হাঁচির সঙ্গে নাক চুলকায়, ঘুম থেকে উঠেই হাঁচি শুরু হয়ে যায়, একবার হাঁচি শুরু হলে থামতে চায় না, চোখ দিয়ে অনবরত জল পড়ে, চোখে চুলকানি (Allergic rhinitis), চোখ লাল হয়ে যায়? তাহলে বুঝতে হবে অ্যালার্জিক রাইনাইটিস আছে।

অ্যালার্জিক রাইনাইটিস (Allergic rhinitis) দু’রকম, সিজনাল–বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে অ্যালার্জিক রাইনাইটিস হয়, যেমন বর্ষাকাল বা শীতকালে। সর্দি-কাশি, গলায় চুলকানি, মাঝেমাধ্যেই জ্বর ইত্যাদি হবেই। পেরিনিয়াল–সারা বছর ধরে সর্দি-কাশি, হাঁচি থাকবেই।

সাইনাসাইটিস হোক বা অ্যালার্জিক রাইনাইটিস, উপশম হবে কীসে?