পুরুষদের যৌন সক্ষমতা কমিয়ে দেয় কোন কোন অভ্যাস

গুড হেলথ ডেস্ক

স্বাভাবিক যৌনসম্পর্ক স্থাপনে আজকাল অন্যতম বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে স্ট্রেস। অতিরিক্ত কাজের চাপ, অনিয়ন্ত্রিত জীবনধারার মাঝে যৌনতায় আগ্রহ হারাচ্ছেন অনেক পুরুষ। এতে ইরেকটাইল ডিসফাংশনের (Erectile dysfunction) মতো শারীরিক সমস্যাও বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রোজকার জীবনে এমন কিছু অভ্যাস আছে যা পুরুষদের যৌন সক্ষমতা কমিয়ে দিতে পারে।

কোন কোন অভ্যাস ক্ষতির কারণ–

১) মানসিক চাপ ও টেনশন অন্যতম কারণ। ইনফার্টিলিটি বা ইরেকটাইল ডিসফাংশনে যাঁরা ভোগেন তাঁদের বেশিরভাগকেই দেখা গেছে, লাইফস্টাইল ম্যানেজমেন্ট ঠিকমতো নেই। দিনে ১৬ থেকে ১৮ ঘণ্টা কাজ করেন। বাড়ি ফিরেও ডেডলাইন নিয়ে কাজ করেন। সঠিক সময় খাওয়া নেই, পর্যাপ্ত ঘুম নেই, দিনভর শরীরে ক্লান্তি থাকে। ডেডলাইনের চক্করে তাঁদের মাথায় কাজ ছাড়া আর কিছুই থাকে না। মানসিক চাপ ডেকে আনতে পারে অনিদ্রা ও হরমোনের ভারসাম্যের সমস্যা। ফলে সমস্যা দেখা দিতে পারে যৌনজীবনেও।

২)নিয়মিত ধূমপানের (Smoking) প্রভাব পড়ে শুক্রাশয়ে। শুক্রাণু দুর্বল হয়। ধূমপানের ফলে শরীরে ক্যাডমিয়াম ও জিঙ্কের মতো ক্ষতিকর ধাতু ঢোকে, এই ধাতুগুলো শুক্রাশয়ের ওপর প্রভাব ফেলে। ধূমপান করলে স্পার্ম কাউন্ট কমে যেতে পারে। চেন স্মোকারদের পরবর্তী সময়ে ইরেকটাইল ডিসফাংশন, সহবাসে অক্ষমতা আসতে পারে।

Men

৩) মদ্যপানও অন্যতম কারণ। অ্যালকোহল শরীরে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে। পাশাপাশি মদ্যপান দেহের এমন কিছু স্থানে মেদসঞ্চয় করে যা বিড়ম্বনা তৈরি করতে পারে যৌনমিলনের সময়।

৪) অস্বাস্থ্যকর খাওয়ার অভ্যাস যৌন অক্ষমতার অন্যতম কারণ। ওবেসিটিতে আক্রান্ত পুরুষদের শুক্রাণুর (Male Infertility) সংখ্যা কমতে পারে, এমনটাই দাবি করা হয়েছে নানা গবেষণায়। স্পার্ম কাউন্টও কমে যায় এই ভুঁড়ি ও ওবেসিটি থেকেই। সেই সংখ্যা এতটাই কমের দিকে থাকে যে সন্তান উৎপাদনের ক্ষেত্রে বড়সড় বাধা হয়ে দাঁড়ায়।