Weight Loss: ভাত ছাড়তে পারছেন না? দু’বেলা খেয়েই ওজন কমান, কিন্তু কীভাবে

গুড হেলথ ডেস্ক

ওজন কমানোর কথা ভাবলে প্রথমেই ভাত খাওয়া ছেড়ে দেন বেশির ভাগ মানুষ (Weight Loss)। তাও আবার রাতে ভাত খাওয়া একেবারে নিষিদ্ধ হয়ে যায়। কিন্তু দুপুরে আর রাতে পেট ভরে ভাত খাওয়াই যে অভ্যাস। তাই চেষ্টা করেও বেশি দিন ধরে রাখতে পারেন না নতুন ডায়েট প্ল্যান। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, এর কোনও প্রয়োজনই নেই। দু’বেলা ভাত খেয়েও ওজন ধরে রাখা যায়, শুধু জানতে হবে কীভাবে খাবেন আর কতটা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্যাকেটজাত সিরিয়ালগুলোর চেয়ে অনেক গুণে ভাল ভাত।  কারণ এতে সোডিয়াম, কোলেস্টেরল, গ্লুটেন ইত্যাদি ক্ষতিকর উপাদান থাকে না। চর্বি থাকেই না প্রায়৷ বিশেষ করে ট্রান্স ফ্যাট, যা খেলে কোলেস্টেরল বাড়ার আশঙ্কা থাকে৷ স্যাচুরেটেড ফ্যাটও থাকে না (Weight Loss)। বরং থাকে কমপ্লেক্স কার্বোহাইড্রেট বা স্টার্চ, যা শরীরকে শক্তি জোগায়। ভাত যদি নিয়ম মেনে খাওয়া যায়, তা হলে তা থেকে শরীরে মেদ জমে না তেমন। মূলত ভাতের গ্লাইকোজেন সহজে গলে না বলেই ভাত এড়িয়ে চলেন অনেকে, নিয়ম মানলে সে ভয়ও কাটে।

Rice

দিনে ২ বেলা ভাত খেতেই পারেন, কিন্তু ভাতটাকে একটা মাপের মধ্যে নিয়ে আসতে হবে। সেটা হতে পারে এক কাপ কিংবা দেড় কাপ। যেটুকু ভাত খাবেন, ঠিক সেই পরিমাণ কাঁচা সবজির স্যালাড খেতে হবে। স্যালাডে থাকতে পারে শসা, টমেটো, বাঁধাকপি, গাজর। সামান্য পরিমাণে নুন দিয়ে স্যালাড বানাবেন।

ভাতের সঙ্গে তরকারি মিশিয়ে খাবেন না, বরং তরকারির সঙ্গে ভাত মিশিয়ে খান (Weight Loss)। ডায়েটিশিয়ানরা বলছেন, নানারকম শাকসব্জির তরকারি বেশি করে নিন, তার ওপরে সামান্য ভাত ছড়িয়ে দিন। এইভাবে বেশি ভাত খেয়ে ফেলার অভ্যাস কমবে। ভরপুর সব্জিও পেটে যাবে।

Rice

দিনে যদি ১৫০ গ্রাম চালের ভাতও খান, তাতেও ৫০০ ক্যালোরির বেশি ঢোকে না শরীরে। এক কাপ ভাত খেলে, সমান কাপের মাপে স্যালাড ও সব্জি থাকুক পাতে। এতে ভাতের গ্লাইকোজেন জমে থাকবে না, সহজে গলার সুয়োগ পাবে। তাই লোভে পড়ে অনেকটা ভাত একসঙ্গে নয়। ততটাই ভাত খান, যতটা তরিতরকারি সঙ্গে নিচ্ছেন। ভাতের পরিমাণটা কমান। বরং তার জায়গায় পেট ভরাতে বেশি করে মাছ, মাংস বা উদ্ভিজ্জ প্রোটিন খান।

Rice

ভাত খেয়েই ঘুম দেবেন না। বসে থাকুন বা চলাফেরা করুন।  তাই ভাত খেয়ে ভাতঘুম নয়।

ভাত রান্নার নিয়মও আছে। রাইস কুকারে করা ভাত বা বেশি ফ্যান দেওয়া ভাত খাবেন না।  ডায়েটিশিয়ানরা বলছেন, প্যাকেটজাত ওজন কমানোর খাবার নয়, বরং ভরসা রাখুন আপনার বাড়ির সাদা ভাতেই। আর এক কাপ বাদামি, লাল, কালো বা ওয়াইল্ড রাইস খেলে সারা দিনে যতটা হোল গ্রেন খাওয়ার কথা তার দুই–তৃতীয়াংশই পূরণ হয়ে যায়। ওজনও বাড়ে না।

Jackfruit: গরমে কাঁঠাল খান,স্বাদে শুধু নয় এই ফলেই আছে হাজারো রোগের দাওয়াই