মহিলাদের হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ছে কেন? কী কী লক্ষণ খেয়াল করবেন মেয়েরা

গুড হেলথ ডেস্ক

হার্টের সমস্যা সারা পৃথিবীতে মহামারীর মত ছড়িয়ে পড়েছে। সাধারণত মনে করা হয় হার্টের রোগ বুঝি পুরুষদেরই টার্গেট করে, মহিলাদের করে না। কিন্তু বাস্তবে মহিলাদের হার্টের (Heart Attack) সমস্যা পুরুষদের থেকে বেশি দেখা যায়।

মহিলাদের হার্টের রোগ বাড়ছে কেন?

একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ইদানীং পুরুষদের চেয়ে মহিলাদের হার্টের রোগে (Heart Attack)  আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। হঠাৎ করে এই প্রবণতার বাড়ার মূল কারণ হচ্ছে কাজের ক্ষেত্রে অত্যধিক ধকল, শারীরিক এবং মানসিক ক্লান্তি, অবসাদ।

heart attack

বাড়ির পুরুষ এবং মহিলা দু’জনেই পেশাগত ক্ষেত্রে ব্যস্ত থাকলেও দেখা যায় যে বাড়ির মহিলাদেরই বাড়ির কাজ এবং কেরিয়ার এক সঙ্গে সামলাতে হচ্ছে। যে কারণে তাঁর ক্লান্তির পরিমাণ, শরীরে এবং মনের উপর ধকল অত্যন্ত বেশি। অনুমান করা হচ্ছে, যে এই বাড়তি চাপই হার্টের (Heart Attack)  রোগের কারণ। শেষ পাঁচ বছরের সমীক্ষা বলছে কমবয়সীরাই হার্টের রোগের বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। এর কারণ হল অসংযত জীবনযাপন, অস্বাস্থ্যকর খাওয়ার অভ্যায় ও অতিরিক্ত মানসিক ও শারীরিক ক্লান্তি এবং অবসাদ।

Women's Heart Attack Symptoms

মেয়েদের হার্টের রোগ এত বেশি হওয়ার আরও একটা কারণ হল মেদাধিক্য বা ওবেসিটি, যা হার্টের অসুখের অন্যতম রিস্ক ফ্যাক্টর। আর এদিকে ভারতীয় মহিলাদের সিংহভাগই ঝুঁকে মেদাধিক্যের দিকে।

বিগত কয়েক দশক ধরে অনিয়মিত পিরিয়ড বা মাসিকের সমস্যা বহুগুণে বেড়েছে মহিলাদের মধ্যে। দেখা যাচ্ছে, প্রচুর মহিলাদের নির্দিষ্ট সময়ের আগেই মেনোপজ হয়ে যাচ্ছে। এ দিকে মেনোপজ হলে ইস্ট্রোজেন হরমোনের নিঃসরণ কমে যায়, যা পরোক্ষভাবে হৃদয়ের ওপর কুপ্রভাব ফেলে।

কী কী লক্ষণ দেখে আগেই সাবধান হবেন মেয়েরা?

বুকের মাঝখানে প্রচণ্ড ব্যথা। সবসময় বুকে ব্যথা মানেই হার্টের (Heart Attack)  রোগ নয়, খেয়াল করবেন সেই ব্যথা চোয়ালে অথবা বাম কাঁধ ও হাতে ছড়িয়ে পড়ছে কিনা। এই রকম ব্যথা দেখা দিলে অব্যশই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

 heart attack symptoms

ঘন ঘন শ্বাসের সমস্যা, অল্পেই ক্লান্তি বুক ধড়ফড় হার্টের রোগের ইঙ্গিত হতে পারে।

অতিরিক্ত ঘাম হওয়া হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণ। বিশেষ করে ডায়াবেটিক রোগীদের ক্ষেত্রে বুকে ব্যথা হওয়া ছাড়াও অতিরিক্ত ঘাম, বুক ধড়ফড়, হঠাৎ শরীর খারাপ লাগতে শুরু করলে অব্যশই চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

ঠান্ডা না লাগলেও প্রচণ্ড কাশি, কফের সঙ্গে রক্ত বের হলে সাবধান হতে হবে।

যখনই প্রচণ্ড মাথা ব্যথা হয়, আমরা ওষুধ খেয়ে থাকি। জেনে রাখুন, হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম লক্ষণ হল প্রতিদিনের প্রচণ্ড মাথা ব্যথা।

যদি কাজ করার মধ্যেই আপনি প্রায়ই হঠাৎ করে অজ্ঞান হয়ে যান, তা হলে বুঝবেন হার্টের সমস্যা রয়েছে।

যদি মাঝেমধ্যেই পালস রেট ওঠা-নামা করে তাহলে সতর্ক হতে হবে।