Mental Stress: স্ট্রেসময় জীবন! মানসিক চাপ কমান, সহজ উপায় বলছেন বিশেষজ্ঞরা

গুড হেলথ ডেস্ক

বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে আমরা প্রত্যেকে ছুটছি। স্কুল জীবন থেকে সেই যে প্রতিযোগিতার ইঁদুর দৌড় শুরু হয়, তা আমৃত্যু চলতে থাকে (Mental Stress)। এসবের মাঝে আমাদের ব্যস্ত জীবনে স্ট্রেস আর টেনশন এই দুই শব্দ ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে গিয়েছে। অত্যাধিক কাজের চাপ, মানসিক চিন্তায় মানুষ ভাল থাকতেই ভুলে যায়।

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে অতিরিক্ত স্ট্রেস বা টেনশন শুধু মানসিক ক্ষতি করে না, শারীরিক সমস্যা যেমন অনিদ্রা, উচ্চরক্তচাপ, খিদে কমে যাওয়া, মাথাব্যথা এমনকি হৃদরোগেরও কারণ হয়ে ওঠে। তাই মানসিক ও শারীরিক ভাবে সুস্থ আর ফিট থাকার জন্য স্ট্রেস ও টেনশনের মোকাবিলা করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

Mental Stress

স্ট্রেস (Mental Stress) কমবে কী ভাবে?

বিশ্বের বড় বড় মনোবিজ্ঞানীরা স্ট্রেস (Mental Stress) কমানোর বেশ কিছু উপায় বাতলেছেন। মেনে দেখতে পারেন…

১) সুস্থ থাকতে হলে প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুম অবশ্যই প্রয়োজন। একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষকে নিদেনপক্ষে রোজ ছয় থেকে আট ঘণ্টা ঘুমোতে হবে। ঘুমোলে শরীরের পাশাপাশি মনও চাঙ্গা থাকে। কমে স্ট্রেস।

Mental stress

২) মেডিটেশনের সুফল কে না জানেন! মানসিক চাপ দূর করতে ও মনকে শান্ত করার জন্য মেডিটেশন একটি অত্যন্ত কার্যকরী পদ্ধতি। প্রাণায়াম, ধ্যানের মাধ্যমে মেডিটেশন করতে পারেন। মেডিটেশন আমাদের শরীরে দুশ্চিন্তা সৃষ্টিকারী হরমোন কর্টিসলের পরিমাণ কমায়। যার ফলে মানসিক স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

৩) প্রতিদিন অন্তত ২০ থেকে ৩০ মিনিট শরীরচর্চা করার অভ্যেস করতে হবে। ব্যায়ামের মাধ্যমে আমাদের ব্রেইন ডোপামিন হরমোন নিঃসৃত করে। ডোপামিন হরমোনের কারণে মানসিক খুশি ও শান্তি বজায় থাকে।

৪) মানসিক চাপ (Mental Stress) দূর করতে বন্ধু ও পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানো খুবই জরুরি। সবসময় একা থাকার অভ্যেস আমাদের মনের মধ্যে দুশ্চিন্তার পরিমাণকে বাড়িয়ে তোলে। বন্ধু, পরিবার বা আত্মীয়দের সাথে সময় কাটালে দুশ্চিন্তা দূরে থাকে।

Stress Management

৫) প্রাণ খুলে হাসার অভ্যাস আমাদের মন ভাল রাখার জন্য খুব উপকারী। সবসময় গম্ভীর থাকার বদলে প্রাণ খুলে হাসলে আমাদের শরীরে সেরাটোনিন এবং এন্ডোরফিন হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। যার ফলে আমাদের মন ভাল হতে শুরু করে।

Sneezing: বছরভর হাঁচি-কাশি? মারাত্মক সমস্যায় ভুগছেন কিন্তু

Mental Stress

৬) মানসিক স্বাস্থ্য (Mental Stress) ভাল রাখতে ঘন ঘন চা কফি খাওয়ার প্রবনতা কমানো প্রয়োজন। চা ও কফির মধ্যে ক্যাফেইন থাকে, যা আমাদের মস্তিষ্ককে সজাগ রাখতে সাহায্য করে। তবে অতিরিক্ত ক্যাফেইন নেওয়ার ফলে আমাদের মানসিক চাপ বৃদ্ধি পায়। যার ফলে স্ট্রেস ও দুশ্চিন্তা সমস্যা দেখা যায়।

৭) স্ট্রেস কমাতে রুটিনবদ্ধ জীবন ভীষন জরুরি। কাজ করতে হবে, তবে সীমা পরিসীমা মেনে। সীমাহীন পরিশ্রম টেনশন বাড়ায়। জীবনকে উপভোগ করার পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়। সঙ্গে ভাল খাওয়ার অভ্যেস করুন। রোজ রোজ ফাস্টফুড, নেশা আসক্তি, বিশৃঙ্খল জীবন স্ট্রেসকে যেচে আহ্বান করে। তাই পরিমার্জিত হন। ভাল থাকুন।